Ads1

তামাবিল এডি শাখার মাধ্যমে অগ্রণী ব্যাংকের ই-পেমেন্ট/ই-কাস্টমস সেবার যাত্রা শুরু।

তামাবিল এডি শাখার মাধ্যমে অগ্রণী ব্যাংকের ই-পেমেন্ট/ই-কাস্টমস সেবার যাত্রা শুরু।


জাফলং প্রতিনিধি::

২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২২ খ্রিঃ অপরাহ্নে প্রধান কার্যালয়ের আইটি এন্ড এমআইএস ডিভিশনের সহযোগিতায় তামাবিল এডি শাখার মাধ্যমে পরীক্ষামূলকভাবে অগ্রণী ব্যাংকের ই-পেমেন্ট/ই-কাস্টমস পদ্ধতি সফলভাবে সম্পন্ন হয়েছে।

এখন থেকে অগ্রণী ব্যাংকের যেকোন শাখা থেকে এসাইকুডা ওয়ার্ল্ড সিস্টেমের সব ধরনের বিল অব এন্ট্রির বিপরীতে শুল্ক-কর পরিশোধ করা যাবে ই-পেমেন্টের মাধ্যমে। ই-পেমেন্ট সফলভাবে সম্পন্ন করার পর আমদানিকারকের নিকট হস্তান্তর করা হয়। তামাবিল শাখার ব্যবস্থাপক মোঃ আশরাফুল আলম, কাস্টমসের রাজস্ব কর্মকর্তা আশিকুর রহমান, তামাবিল চুনাপাথর পাথর ও কয়লা আমদানিকারক গ্রুপের সহ সভাপতি মোঃ জালাল উদ্দীন (সিআইপি), দি সিলেট চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক হাজী সরোয়ার হোসেন ছেদু  এবং অন্যান্য আমদানিকারক সহ ব্যাংক ও কাস্টমস কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন। 

অধিকন্তু, মালামাল আমদানি করলে পে–অর্ডার বা চালানের মাধ্যমে শুল্ক-কর পরিশোধ করা যাবে না। শুল্ক-কর পরিশোধ করার ক্ষেত্রে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ই-পেমেন্ট বাধ্যতামূলক। জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) সম্প্রতি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এসাইকুডা ওয়ার্ল্ড সিস্টেমের মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে শুল্ক-কর ও মাশুল পরিশোধ করা যাবে।

সব ধরনের বিল অব এন্ট্রির বিপরীতে শুল্ক-কর পরিশোধ করতে হবে ই-পেমেন্টের মাধ্যমে। এর পাশাপাশি অন্যান্য মাশুলও ই-পেমেন্টের আওতায় চলে আসবে।

ই-পেমেন্ট ব্যবস্থায় আমদানিকারক বা সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টের ব্যাংক হিসাব থেকে সরাসরি বাংলাদেশ ব্যাংকের মাধ্যমে সরকারি ট্রেজারিতে অর্থ পরিশোধ করা যায়। ফলে আমদানিকারক বা সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট নির্বিঘ্নে দ্রুত রাজস্ব পরিশোধ করতে পারবেন। এতে আমদানি-রপ্তানি পর্যায়ে শুল্ক-কর পরিশোধে জালিয়াতির ঝুঁকি কমে যাবে।


জাফলং নিউজ/ডেস্ক