Ads1

মৌলভীবাজার পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট এ সম্পন্ন হলো ফুড প্রজেক্ট তৈরীর কাজ


মৌলভীবাজার পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট এ সম্পন হলো ফুড প্রজেক্ট তৈরীর কাজ
কামরান আহমদ :: 
মৌলভীবাজার পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটে (এমপিআই) ৭ম পর্বের ইন্ডাস্ট্রিয়াল অ্যাটাচমেন্টের জন্য প্রজেক্ট তৈরির কাজ চলছে৷ প্রত্যেক বিভাগের শিক্ষার্থীদেরকে এই প্রজেক্ট তৈরি করে উপস্থাপন করতে হয়।

ফুড টেকনোলজির বিভাগীয় প্রধান এ. কে. এম. খাদেমুল বাশারের তত্ত্বাবধানে বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) ফুড এনালাইসিস ল্যাবে শিক্ষার্থীরা সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত কাজ করে যাচ্ছেন এই প্রজেক্ট তৈরিতে।

ল্যাবে গিয়ে দেখা যায়, অত্র প্রতিষ্ঠানের ফুড টেকনোলজির শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন গ্রুপ ভেদে ভিন্ন ভিন্ন প্রজেক্ট তৈরি করছেন। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো ফ্রুট গ্লাস কেক, স্কোয়াস, জ্যাম-জেলি, সেমাই বরফি, চকলেট-ভ্যানিলা-কোকো ফ্লেভারের আইসক্রিম, চালের সেমাই, মিষ্টি দই। সুস্বাদু খাবারের ঘ্রাণে ভরপুর পরিবেশ। সহপাঠীরা খাদ্যের স্বাদ নেওয়ার আকুল আগ্রহে বসে আছেন।

'ফ্রুট গ্লাস কেক' টিমের রনি কুমার দাস জানান, এই প্রজেক্টটি তৈরি করতে অনেক পরিশ্রম দিতে হয়েছে। দুইদিন যাবত আমার টিম নিয়ে প্রজেক্টের জন্য প্রয়োজনীয় উপকরণ সংগ্রহ করেছি। আমরা আশাবাদী এই প্রজেক্টে (এ+) পাব।

'আইসক্রিম' প্রজেক্টের অমিত পাল জানান, প্রথমে আমরা আইসক্রিম বানাতে কিছুটা সমস্যার সম্মুখীন হই। পরে আমরা জানতে পারি আমরা যে হুইপ ক্রিমটা ব্যাবহার করেছিলাম সেটায় কিছু ত্রুটি ছিল। সারাদিন ধরে চেষ্টা করার পর আমরা সফল হয়েছি।

'সেমাই বরফি' টিমের সৈয়দা রুকসানা লাকি বলেন, সেমাইকে ভিন্ন রূপে আর ভিন্ন স্বাদে পরিবেশনের জন্য একটি রেসিপি হচ্ছে সেমাই বরফি। একেবারে কম উপকরণে কম সময়ে বানানো একটা মজার খাবার এটা। সহপাঠীরা এর স্বাদের প্রশংসাও করেছে।

এ বিষয়ে ফুড টেকনোলজির বিভাগীয় প্রধান এ. কে. এম. খাদেমুল বাশার বলেন, প্রত্যেকটা প্রজেক্ট খুব সুন্দর হয়েছে। সকাল থেকে শিক্ষার্থীরা অক্লান্ত পরিশ্রম করে যাচ্ছে। চাকরী জীবনেও যাতে তারা এই প্রজেক্টগুলো আরও প্রসারিত করতে পারে এই আশাবাদ ব্যক্ত করছি।

জাফলং নিউজ/ডেস্ক/কামরান